Book Appointment
X

Choose location for Appointment


শিরা সংক্রান্ত রোগের বিভিন্ন পর্যায় সম্পর্কে জানুন এবং অঙ্গ ছেদন রোধ করুন

stages of venous disease

আজকের সময়ে সঞ্চালিত অঙ্গচ্ছেদগুলির অর্ধেকেরও বেশি এমন কিছু অবস্থার কারণে হয়ে থাকে, যা মানবদেহের বিভিন্ন অংশের রক্ত ​​প্রবাহকে ব্যহত করে। এর মধ্যে নিম্নাংশের অঙ্গবিচ্ছেদ বেশ সাধারণ আর এর বেশিরভাগই শিরাজনিত রোগের কারণে সঞ্চালিত হয়। 

এই ব্লগে আমরা ব্যাখ্যা করব, রক্তনালীর রোগের প্রগতিশীল পর্যায়গুলি কীভাবে সনাক্ত করবেন।  আমদের লক্ষ্য, আপনারা যাতে লক্ষণগুলি চিনতে এবং আপনার শিরাজনিত সমস্যার জন্য প্রাসঙ্গিক চিকিত্সার সন্ধান পেতে পারেন। সঠিক রোগ নির্ণয় এবং সময়মত চিকিৎসার মাধ্যমে, এভিস ভাস্কুলার সেন্টারের আমাদের ডাক্তাররা আপনাকে অঙ্গচ্ছেদ প্রতিরোধ করতে সাহায্য করতে পারেন।

শিরা জনিত রোগের পর্যায়

পা থেকে রক্তের প্রায় 90% পেশীগুলির মধ্যে অবস্থিত গভীর শিরাগুলির মাধ্যমে হৃৎপিণ্ডে ফেরত পাঠানো হয়। ভেসে ওঠা শিরাগুলি ত্বকের নীচে, পেশীর বাইরে বেড়িয়ে থাকে। গভীর শিরা বা ভেসে ওঠা শিরা দুটিতেই ভেনাস রিফ্লাক্স দেখা দিতে পারে এবং পায়ের শিরায় ফুটোযুক্ত ভালভের কারণেও ঘটতে পারে। 

সাধারণত, পায়ের শিরাগুলিতে একমুখী ভালভ থাকে যা রক্তের প্রবাহকে এক দিকে হয়ে উপরের দিকে এবং হৃৎপিণ্ডের দিকে যেতে সাহায্য করে। যখন ভালভ ফুটো হয়ে যায় এবং ত্রুটি  থাকে, তখন রিফ্লাক্স দেখা দেয় এবং রক্ত ​​পায়ের দিকে উল্টামুখী হয়ে প্রবাহিত হতে থাকে। রক্ত জমাট বাঁধার সাথে সাথে শিরাগুলো ফুলে উঠতে শুরু করে। প্রগতিশীল এই অবস্থা সাধারণত ত্বকের বিভিন্ন পরিবর্তনের সাথে সম্পৃক্ত। সেগুলি শনাক্ত করা এবং সময়মতো এর চিকিৎসা গ্রহণ নিশ্চিত করা হলে অবস্থার তীব্রতা হ্রাস পাবে। 

রোগের তীব্রতার ক্রমানুসারে নিচে রোগের অগ্রগতির বিভিন্ন পর্যায় উল্লেখ করা হল।

  • ভেরিকোস ভেইন

শিরা সংক্রান্ত সমস্যার প্রাথমিক লক্ষণ হল ভেরিকোস ভেইন। সেগুলি দেখতে পেঁচানো, বেগুনি রঙের শিরা, পায়ে ভেসে ওঠে যা সাধারণত পায়ে হয়ে থাকে। সাধারণত ত্বকের পৃষ্ঠের খুব কাছাকাছি স্থানে থাকে।

  • আঁকড়, ব্যথা এবং পা ফুলে যাওয়া

ভ্যারিকোস ভেইনের অগ্রগতি এবং খারাপ পর্যায়ে যাওয়ার সাথে সাথে রোগীরা পায়ে ব্যথা, আঁকড় এবং পায়ে ওজন বৃদ্ধি অনুভব করতে শুরু করে। পায়ে রক্ত ​​জমাট বাঁধলে ফুলে যেতে থাকে। 

চিকিত্সা করানো না হলে, ভ্যারিকোস ভেইন আপনার সক্রিয় জীবনযাত্রা ব্যাহত করতে পারে। টিস্যুতে তরল জমা হলে লিম্ফ্যাটিক সিস্টেমকে প্রভাবিত করতে পারে। পা ফুলে যাওয়ার সাথে সাথে ভেসেলে চাপ তৈরি হতে শুরু করে, যার ফলে এটি শেষ পর্যন্ত ফেটে যায়। 

  • চমড়ী, বিবর্ণ ত্বক

টিস্যু ক্ষতিগ্রস্ত বা স্ফীত হওয়ার কারণে ত্বকের বিবর্ণতা এবং তীব্র ব্যথা হতে দেখা যায়। আপনি লক্ষ্য করলে দেখবেন, আপনার পায়ের নীচের ত্বক পুরু, লালচে-বাদামী, বা/এবং চামড়াটে হয়ে গেছে।

  • শিরাস্থ আলসার

টিস্যুর ক্ষতি শেষ পর্যন্ত অ-নিরাময়যোগ্য ক্ষতে পরিণত হয় যা আলসার নামে পরিচিত। এই ধরনের আলসার প্রায়ই সংক্রমিত হয়, আর সংক্রমণ টিস্যু, হাড় এবং জয়েন্ট সহ শরীরের বিভিন্ন অংশে ছড়িয়ে পড়তে পারে। এগুলি সাধারণত আপনার গোড়ালির চারপাশে হয় এবং নিরাময়ের জন্য ক্ষতের নিবিড় যত্ন প্রয়োজন।

চিকিত্সা ছাড়া, শিরাস্থ আলসার বড়তে থাকে এবং ত্বক এবং হাড়ের বিপজ্জনক সংক্রমণ ঘটায়। 

ইসকেমিয়া জটিল একটি অবস্থা যা অক্সিজেনের অভাবে অকার্যকর রক্ত ​​সঞ্চালনের কারণে টিস্যু মারা যাওয়ার ফলে ঘটে থাকে। গ্যাংগ্রিন হতে পারে, ফোসকা তৈরি হতে পারে, ত্বকের কালো দাগ তৈরি হতে পারে, সাথে ব্যথা থাকতে পারে, এবং দুর্গন্ধযুক্ত স্রাব নিসৃত হয়। এই গুরুতর পর্যায়টিতে অনেক রোগীর অঙ্গচ্ছেদ করার প্রয়োজন হয়।

অতএব, পায়ের কোনও ব্যথা, বা তৈরি হওয়া কোনও আলসারকে উপেক্ষা করবেন না। তাদের নির্ণয় করে সঠিক চিকিত্সা করানো নিশ্চিত করলে, আপনি আপনার স্বাস্থ্য রক্ষা করতে পারবেন এবং অঙ্গচ্ছেদ প্রতিরোধে সহায়তা করতে পারবেন।

Varicose Veins Treatment In Hyderabad | Bengaluru |Mysore Visakhapatnam | Vijayawada Chennai |Coimbatore Tirupati | Rajahmundry Kolkata | Madurai

For Appointment Call

Telangana: 9989527715

Andhra Pradesh: 9989527715

Tamilnadu: 7847045678

Karnataka: 8088837000

Kolkata: 9154089451

Branches

Home
Services
Doctors
Branches
Blog